৭, ডিসেম্বর, ২০১৯, শনিবার | | ৯ রবিউস সানি ১৪৪১

ঈদগাহে নামাজের শুটিং, ক্ষমা চাইলেন পরিচালক প্রযোজক!

আপডেট: December 4, 2019

ঈদগাহে নামাজের শুটিং, ক্ষমা চাইলেন পরিচালক প্রযোজক!

২৫ নভেম্বর থেকে সিলেটে শুরু হয়েছে পরিচালক রায়হান রাফির ‘ইত্তেফাক’ সিনেমার শুটিং। সিলেটে শুটিং চলবে ২০ দিন।  এরই মধ্যে সিনেমাটির জন্য সিলেটের ঐতিহ্যবাহী শাহী ঈদগাহ ময়দানে একটি দৃশ্য ধারণ করা হয়েছে।

সেই দৃশ্যে দেখা যাচ্ছে সিনেমাটির নায়ক সিয়াম আহমেদ নামাজ আদায় করছেন আর কিছুটা দুরে দাঁড়িয়ে আছেন নায়িকা বিদ্যা সিনহা মিম।

এই দৃশ্যের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তা নিয়ে শুরু হয় সমালোচনা। অনেকে বিরূপ প্রতিক্রিয়া জানায়।

বিষয়টি নির্মিতা প্রতিষ্ঠান কানন ফিল্মস-এর দৃষ্টিগোচর হয়েছে। নেতিবাচক সেইচ সকল প্রতিক্রিয়ার প্রেক্ষিতে প্রতিষ্ঠানটি এ জন্য দুঃখ প্রকাশ করে ধর্মপ্রাণ সিলেটবাসীর কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা করেছে।

গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শুটিংয়ের বিষয় নিয়ে তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করা হয়। সিনেমার পরিচালক ও প্রযোজক রায়হান রাফি স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শাহী ঈদগাহে যে দৃশ্য ধারণ করা হয় সেটি ছিল নামাজের। ঈদগাহ ইসলাম ধর্মের একটি পুণ্যময় স্থান। একজন তরুণের অন্ধকার থেকে আলোর পথে, ইসলাম ধর্মের পথে ফিরে আসাকে তুলে ধরতেই মূলত পুণ্যময় এই স্থানকে বেছে নেয়া হয়। এখানে দু’রাকাত নামাজের একটি দৃশ্য ধারণ করা হয়। কোনোভাবেই সেখানে নাচ-গান বা সিনেমার অন্য কোনো দৃশ্য ধারণ করা হয়নি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও  বলা হয়, নামাজের দৃশ্য মসজিদ বা ঈদগাহে হলে সেটিই প্রকৃত মর্ম উপস্থাপন করবে- এমনটি মনে করেই মূলত ঈদগাহে শুধু ৩ মিনিটের নামাজের একটি দৃশ্য ধারণ করা হয়।  তবুও নামাজের দৃশ্য ধারণের শুটিংয়ের জন্য ঈদগাহ ব্যবহার করায় শাহজালাল-শাহপরাণ (র.)-এর স্মৃতিবিজড়িত সিলেটের ধর্মপ্রাণ মুসলিম সমাজ আমাদের উপর ক্ষুব্ধ হলে বা ধর্মীয়ভাবে আঘাত পেলে আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত, মর্মাহত এবং ক্ষমাপ্রার্থী।