৬, ডিসেম্বর, ২০১৯, শুক্রবার | | ৮ রবিউস সানি ১৪৪১

রাত জেগে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা দিচ্ছেন কৃষকরা

আপডেট: December 4, 2019

রাত জেগে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা দিচ্ছেন কৃষকরা

বিমানে চড়েছে পেঁয়াজ। চীন, তুরস্ক, মিয়ানমার আর পাকিস্তান থেকে আমদনি হয়েছে। তবুও পেঁয়াজের দাম আকাশচুম্বী।

নিত্যপ্রয়োজনীয় মসলাটির দাম যখন মধ্যবিত্তদেরও নাগালের বাইরে তখনও এর দাম কবে কমবে তা সুনির্দিষ্ট করে বলতে পারছেন না বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

দেশি পেঁয়াজের উৎপাদন না বাড়ানো পর্যন্ত কোনো সমাধান দেখছেন না তিনি। ১ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ ভবনের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে পেঁয়াজের বাজার পরিস্থিতি নিয়ে যখন এমন মন্তব্য এলো বাণিজ্যমন্ত্রী থেকে তখন জানা গেলো, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সারারাত জেগে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা দিয়ে যাচ্ছেন কৃষকরা।

পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় রাতের আঁধারে এমনকি দিনদুপুরেও ক্ষেতে চোরের আগমনের ভয়ে শঙ্কিত পেঁয়াজচাষীরা।

জানা গেছে, এবার টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলায় পেঁয়াজের বাম্পার ফলন হয়েছে। চুরির ভয়ে রাত জেগে নিজেদের ক্ষেত পাহারা দিচ্ছেন চাষীরা।

বিশেষকরে ধনবাড়ীর কয়ড়া, হাদিরা, মুশুদ্দি দক্ষিণ পাড়াসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের পেঁয়াজচাষীরা তাদের স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে পালাক্রমে ক্ষেত পাহারা দিয়ে যাচ্ছেন। ক্ষেতের পাশে ছোট ছোট অস্থায়ী ঝুপড়ি নির্মাণ করেছেন। সকালের সূর্য ওঠার আগ পর্যন্ত পেঁয়াজ ক্ষেতের সেই ঝুপড়িতেই নির্ঘুম রাত কাটান তারা। আলো জ্বালিয়ে রাখেন। নিরাপত্তার জন্য সঙ্গে লাঠিও রাখেন।

এমনই ক্ষেত পাহারা দেয়া হাদিরা গ্রামের কৃষক আবদুস ছালাম বলেন, বিষয়টিকে প্রথমে আমলে নেইনি। কয়েকদিন আগে পাশের ক্ষেত থেকে এক কৃষকের অনেক পেঁয়াজ চুরি করে তাকে নিঃস্ব বানিয়ে দিয়ে গেছে চোরেরা। এরপর থেকেই রাত জেগে ক্ষেত পাহারা দিচ্ছি। ভারত পেঁয়াজ দেবে না আমাদের, তাই দেশে সংকটের কারণে এবার এই অঞ্চলের অনেকেই পেঁয়াজ চাষ করেছে। আল্লাহ আমাদের বাম্পার ফলনও দিয়েছেন। এখন যদি চুরি করে পেঁয়াজ নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা তাহলে কপালকে দুষলে তো লাভ হবে না। তাই আগামী ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে ক্ষেত থেকে পেঁয়াজ তুলব। এই কয়টা দিন না হয় নাই ঘুমালাম।

কৃষক আবদুস ছালামের মতো একই কথা জানিয়েছেন ধনবাড়ীর আরো অনেক পেঁয়াজচাষী।

তাদের অনেকেই বলছেন, আগামী ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে গাছের গোড়ায় পেঁয়াজগুলো পরিপক্কতা পাবে। কিন্তু বাজারে ভালো দাম পাওয়ায় আশায় এবং চুরির ভয়ে অনেক কৃষক অপরিপক্ক পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করেছেন।

কৃষকদের এমন বক্তব্য ও রাত জেগে ক্ষেত পাহারা দেয়া প্রসঙ্গে ধনবাড়ী উপজেলা উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ফরিদ বলেন, পেঁয়াজ তো এখন খবরের শিরোনামে। পেঁয়াজ রক্ষার্থে কৃষকরা ক্ষেত পাহারা দিতেই পারেন। এটা অস্বাভাবিক কিছু না। তবে যেভাবেই হোক কৃষককে পেঁয়াজ চুরি ঠেকাতে হবে।

তিনি বলেন, এ অঞ্চলের জমি পেঁয়াজ চাষের জন্য খুবই উপযোগী। এখানে পেঁয়াজের ফলন ভালো হয়েছে। এ বছর এখানকার কৃষকরা পেঁয়াজ চাষে লাভবান হবেন।