১৫, ডিসেম্বর, ২০১৯, রোববার | | ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১

গোপালগঞ্জ জেলার আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারির তালিকা নেই

আপডেট: November 12, 2019

গোপালগঞ্জ জেলার আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারির তালিকা নেই

এম শিমুল খান, গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জ জেলার আওয়ামীলীগে অনুপ্রবেশকারিদের তালিকায় বিভিন্ন গণমাধ্যমে একজনের নাম উঠে আসায় আলোচনা সমালাচোনায় মুখর গোপালগঞ্জের সকল জায়গা। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে প্রতিবাদ করেছে অনেেেক। তাদের দাবি জেলায় অসংখ্য অনুপ্রবেশকারি আছে কিন্তু তাদের নাম কেন প্রকাশ করা হচ্ছে না। খে মুখে আলোচনায় থাকে।

ওই সকল কোন অনুপ্রবেশকারির নাম প্রকাশ না করার জন্য অনেকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। বিগত দিনে আওয়ামী লীগের দুর্দিনে জাতীয় পার্টি করতেন সেই সকল লোক দলের গুরুত্বপূর্ণ পদে স্থান করে নিয়েছেন। বিএনপি জামাত করতেন এমন লোক ও দলের গুরুত্বপূর্ণ পদে জায়গা করে নিয়েছেন। গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগ, উপজেলা আওয়ামীলীগ, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগসহ নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের মধ্যে এই সকল অনুপ্রবেশকারিদের সংখ্যা সব চেয়ে বেশি।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলা আওয়ামীলীগের প্রভাবশালি একজন নেতা বলেন বিগত দিনের অনুপ্রবেশকারীর চাইতে বর্তমান কমিটিতে বেশি হাইব্রিড এবং অনুপ্রবেশকারি আছেন। জেলা আওয়ামীলীগসহ উপজেলা আওয়ামীলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদে সেই সকল নেতা আছেন। তিনি স্পষ্ট করে নাম করে বলেন বর্তমান কমিটিতে এই সকল লোক কি ভাবে জায়গা করে নিলো সেটাই এখন বড় প্রশ্ন। এখন এদের দাপটে আসল ত্যাগি নেতারা ধারের কাছে আসতে পারছে না। সম্প্রতি দলের নির্দেশে এই সকল অনুপ্রবেশকারিদের একটি তালিকা সকল জেলায় পাঠানো হয়েছে। সেই তালিকাটি পাওয়ার জন্য চেস্টা করা হলেও কেউ পায় নাই এবং এ ব্যাপারে তারা কিছুই জানেন না বলে জানান।

গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক ইলিয়াস হকের কাছে তালিকা চাইলে তিনি বলেন, দলের সকল চিঠি সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরাবর আসে। তিনি ইচ্ছা করলে কোনটা দেখান কোনটা দেখান না। অনুপ্রবেশকারিদের তালিকা তারা পেয়েছেন কিনা আমার জানা নাই। তিনি মিডিয়া কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা চাইলে তাদের কাছে ওই তালিকা চাইতে পারেন।

বিতর্কিত অনুপ্রবেশকারিদের নাম জানতে চাইলে তিনি বলেন, গোপালগঞ্জ সকল জেলার চাইতে ভিন্ন। এখানে কে অনুপ্রবেশকারী সকলেরই জানা আছে তারপরেও এদের ব্যাপারে কেন্দ্রীয় নির্দেশের অপেক্ষায় থাকেন।

সম্প্রতি প্রাক্তন ছাত্র রাজনীতির কিছু উল্লেখ যোগ্য নেতারা বিভিন্ন জায়গায় মিলিত হয়ে বর্তমান গোপালগঞ্জ রাজনীতির গুনগত পরিবর্তন আনতে বিভিন্ন কর্মকান্ড সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে প্রকাশ করছেন। তারা অতিতের সকল প্রাক্তন ছাত্রনেতাদের সঙ্গে বর্তমান রাজনীতি নিয়ে আলাপ করছেন। তাদের বিশ্বাস বর্তমান শুদ্ধি অভিযানে গোপালগঞ্জ জেলার আওয়ামীলীগের অনেকেই বাদ পড়বেন এবং শুধু মাত্র ক্লিন ইমেজের অনেক ত্যাগি নেতাই এবার দলে গুরুত্বপূর্ণ পদে আসবেন।