১৮, নভেম্বর, ২০১৯, সোমবার | | ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

যুবলীগ দক্ষিন এর সম্ভাবনাময় নেতৃত্ব

আপডেট: November 10, 2019

যুবলীগ দক্ষিন এর সম্ভাবনাময় নেতৃত্ব

শুদ্ধি অভিযানের মতো বড় ধাক্কার পর কেমন হবে যুবলীগের কমিটি- সেই আলোচনা এখন সর্বত্র। আগামী ২৩ নভেম্বর বেলা ১১টায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে যুবলীগের জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যুবলীগের অনেক নেতাও রয়েছেন দৌড়ের ওপর। সার্বিক পরিস্থিতিতে প্রথমবারের মতো যুবলীগের দোর্দণ্ড প্রতাপশালী চেয়ারম্যান ওমর ফারুককে ছাড়াই অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবারের যুবলীগের কাউন্সিলে বড় ধরনের পরিবর্তন আসবে কমিটিতে, এটি নিশ্চিত। ক্যাসিনো ব্যবসায়ী, দুর্নীতি ও টেন্ডারবাজ, চাঁদাবাজ নেতারা বাদ পড়বেন। নেতৃত্বে আনা হবে ক্লিন ও স্বচ্ছ ভাবমূর্তির নেতাদের। ইতিমধ্যে নতুন নেতৃত্বের সন্ধান শুরু করেছেন খোদ আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে সার্বিক সহযোগিতা করছে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা। প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ নেতারা জানিয়েছেন, যুবলীগের নেতৃত্ব নির্বাচনের ক্ষেত্রে পরিচ্ছন্ন ইমেজকে প্রাধান্য দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

কারণ এই সংগঠনের বর্তমান ভাবমূর্তি তলানিতে এসে ঠেকেছে। এখন এমন নেতা প্রয়োজন, যারা ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার ও সেটা ধরে রাখবেন। এর ধারাবাহিকতায় আগামী ১৬ নভেম্বর স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়। এর আগে ১১ ও ১২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে সংগঠনটির গুরুত্বপূর্ণ দুই শাখা ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের সম্মেলন। শীর্ষ এ পদের দৌড়ে এগিয়ে আছেন

ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণ এর সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আলোচিত নেতৃবৃন্দ,

মাইনুদ্দিন রানা – ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, তিনি ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের সিনিয়র সহ সভাপতি হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।দীর্ঘদিন ধরে যুবলীগ রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত।

আহমেদ উল্লাহ মধু – ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের সহ-সভাপতি হিসেবে বর্তমানে দ্বায়িত্ব পালন করছেন, আহমদ উল্লাহ মধুর ১৯৮৪-১৯৯০ সাল পর্যন্ত ছাত্রলীগের বিভিন্ন পদে থেকে ওয়ার্ড ও থানার দায়িত্ব পালন করেন।

নাজমুল হাসান টুটুল – বর্তমান সহ-সভাপতি, সাবেক ছাত্রলীগের রাজনিতীতে সক্রিয় ছিলেন সৎ পরিচ্ছন্ন সূদর্সন এ নেতা।

হারুনুর রশীদ – ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের সহ-সভাপতি হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করে আসছেন সম্ভাব্য এই প্রার্থী৷

মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান পলাশ – সাবেক ছাত্রনেতা ক্লিন ইমেজের প্রতিচ্ছবি ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান পলাশ সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ প্রার্থী হিসেবে বিবেচিত হচ্ছেন।, ১/১১ আগে ও পরে ছাএ আন্দোলন সংগ্রামে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালনকারী পলাশ নির্যাতনের শিকার। পলাশ কর্মীবান্ধব নেতা হিসেবে পরিচিত।

এমদাদুল হক এমদাদ – ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের দপ্তর সম্পাদক হিসেবে রয়েছেন এই প্রার্থী।
সৈয়দ মার্শীদ শুভ – সাবেক ছাত্রনেতা ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের স্বাস্থ্য সম্পাদক হিসেবে রয়েছেন এই প্রার্থী।
খন্দকার আরিফুজ্জামান – সাবেক ছাত্রনেতা, ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের উপ দপ্তর সম্পাদক হিসেবে রয়েছেন।
এম আর মিঠু – ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের নির্বাহী সদস্য। ও সাবেক ছাত্রলীগের নেতা।