২২, নভেম্বর, ২০১৯, শুক্রবার | | ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

কালীগঞ্জের মিনি এখন মাদকের গডফাদার ॥ চোরাকারবারিদের ভিডিও সাক্ষাৎকার ফেসবুকে ভাইরাল

আপডেট: November 9, 2019

কালীগঞ্জের মিনি এখন মাদকের গডফাদার ॥ চোরাকারবারিদের ভিডিও সাক্ষাৎকার ফেসবুকে ভাইরাল

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি- ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের সিমলা-রোকনপুর ইউনিয়নের পুকুরিয়া গ্রামের মিনি মালিতা নামের এক মাদক ব্যবসায়ী কে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম (ফেসবুকে) নানা ধরণের কু-রুচি পূর্ণ ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনায় বর্তমানে মানুষের মুখে মুখে নানা ধরণের আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। এলাকার নানা শ্রেণী পেশার মানুষের কাছ থেকে জানা যায়, পুকুরিয়া গ্রামের কৃষক আব্দুর রশীদ মালিথার দুই ছেলে। বড় ছেলে মাহবুবুর রহমান সে ইতিপূর্বে মাদক মামলায় দুই বছর সাজাপ্রাপ্ত হয়ে অতিসম্প্রতি কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পেয়েছে। ছোটছেলে সুলতান মাহমুদ মিনি মালিতা মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত হয়ে কালীগঞ্জ শহরে আয়েশা তেল পাম্পের সামনে কোটি টাকা ব্যায়ে গড়েছেন আলিশান বাড়ি, কিনেছেন গাড়ি। বিভিন্ন ব্যাংকে নামে বেনামে রয়েছে অগনিত টাকা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ইতিপূর্বে মিনি মালিতা একজন আখ চাষী ছিলেন। মোবারকগঞ্জ চিনিকলে তিনি আখ সরবরাহ করতেন। কালীগঞ্জ শহরের মেইন বাসস্টান্ডে তিনি হোমিও প্যাথিক ব্যবসার আড়ালে স্পিরিট, ফেন্সিডিল, ইয়াবার রমরমা ব্যবসা চালিয়ে আসছে। তার অত্যাচারে এলাকার সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। চাদাবাজি সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে এলাকা ছেড়ে বিদেশ চলে যেতে বাধ্য হয়েছে অনেকে। অতি সম্প্রতি পুকুরিয়া গ্রামের হাবিব খাঁ ও আব্দুল হক নামের দুই ব্যাক্তি সামাজিক গণমাধ্যম (ফেসবুকে) ভিডিও মাধ্যমে তাদের অভিব্যাক্তি প্রকাশ করে জানিয়েছেন। মিনি মালিতা তাদেরকে দিয়ে ফেন্সিডিল ব্যবসা করাতো। মিনি মালিতার মাদক চোরাচালানের সময় হাবিব খাঁ ও আব্দুল হক পুলিশের হাতে ধরা পড়ে এবং মামলার স্বীকার হয়।

তাদের দাবি পরবর্তীতে তাদেরকে কোন খোঁজ খবর নেওয়া হয় না। সেকারণে তারা মিনির বিচার দাবি চেয়ে বলেন এ ধরণের অনেককে মাদকের সাথে জড়িয়ে বিপদে ফেলে তিনি হয়েছেন আর্থিকভাবে লাভবান। এ ব্যাপারে মিনি মালিতার সাথে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।