২২, নভেম্বর, ২০১৯, শুক্রবার | | ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

দুজনেই দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী, তবুও থেমে নেই ওরা

আপডেট: November 4, 2019

দুজনেই দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী, তবুও থেমে নেই ওরা

আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: ওরা দুই জনেই জন্ম থেকে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী। তবুও জীবনকে জয় করে শিক্ষক হয়ে শিক্ষা সেবা করার স্বপ্ন তাদের মাঝে। প্রতিবন্ধিতাকে জয় করে এগিয়ে যেতে চায় তারা অনেক দূর। সোমবার সকালে পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে চলমান জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে তারা। স্বপ্ন দেখা ওই দুই জনেই হলেন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী আরিফুজ্জামান লিমন ও মোস্তফা কামাল মঞ্জু।

তারা দুজনেই লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার সরকারি আদিতমারী জিএস মডেল উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছেন। আরিফুজ্জামান উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের দিনমজুর আবদুর রাজ্জাকের ছেলে। পিএসসি পরীক্ষায় সে জিপিএ ৪ পেয়েছিল। মোস্তফা কামাল একই উপজেলার দুরাকুটি গ্রামের দিনমজুর লাল মিয়ার ছেলে। পিএসসি পরীক্ষায় সে জিপিএ ৩.৯২ পেয়েছিল। সমন্বিত দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষা কার্যক্রম সাপ্টিবাড়ীর আওতায় তারা ব্রেইল পদ্ধতিতে লেখাপড়া করে আসছে। তারা শ্রুতি লেখকের সহায়তায় এবার সাপ্টিবাড়ী বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয় থেকে জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। পরীক্ষা শেষে তারা জানায়, দ্বিতীয় দিনের ইংরেজি পরীক্ষায় তারা শতভাগ উত্তর দিতে সক্ষম হয়েছে।

সমন্বিত দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষা কার্যক্রম সাপ্টিবাড়ীর রিসোর্স শিক্ষক এরশাদ আলী জানান, আরিফুজ্জামান ও মোস্তফা কামাল দুজনই মেধাবী ছাত্র।

সাপ্টিবাড়ী বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু সাঈদ মো. তায়েজ উদ্দিন বলেন, শনিবার থেকে শুরু হওয়া জেএসসি পরীক্ষায় নিয়মতি শিক্ষার্থী হিসেবে তার বিদ্যালয় থেকেই ওই দুজন অংশ নিচ্ছে। তারা অত্যন্ত মেধাবী ও বিনয়ী হিসেবে পরিচিত।

আদিতমারী সরকারি জিএস উচ্চবিদ্যালয় মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও কেন্দ্র সচিব শওকাত আরা সিদ্দিকা বলেন, নিয়ম অনুযায়ী অন্য শিক্ষার্থীদের চেয়ে ওই দুই শিক্ষার্থী পরীক্ষায় ২০ মিনিট বেশি সময় পেয়েছে।