সিরাজদিখানে নিখোঁজ স্কুল ছাত্রী উদ্ধারের ৬দিন পর আত্মহত্যা,পরিবারে শোকের ছায়া

সমগ্র বাংলা

সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ
মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় নিখোঁজ স্কুল ছাত্রী উদ্ধারের ৬ দিন পর আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। গত বুধবার সকাল সাড়ে ৯ টায় উপজেলার চিত্রকোট ইউনিয়নের গোয়ালখালী গ্রামের প্রবাসী গোপার মন্ডলের মেয়ে সেতু মন্ডল (১৫) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। সে ঢাকা নবাবগঞ্জ উপজেলার দৌলতপুর কবি নজরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চলতি মাসের ১০ এপ্রিলে স্কুলে যাওযার জন্য বাসা থেকে বের হলে নিখোঁজ হয় সেতু মন্ডল। ১১ এপ্রিলে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার গোলাম বাজার পুলিশ ক্যাম্পের এলাকায় স্থানীয়রা সেতুকে স্কুল ড্রেস পরা অবস্থায় ঘুরতে করতে দেখে ক্যাম্প পুলিশকে খবর দিলে তাকে উদ্ধার করে বাড়ীতে খবর দেওয়া হয়। সেতু মন্ডলের আত্মীয় স্বজনরা স্কুল তাকে বাড়ীতে নিয়ে আসেন। উদ্ধারের সময় সেতুকে তদ্রাচ্ছন্ন অবস্থায় পাওযা যায়। উদ্ধারের পর উপজেলার শেখরনগর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র সেতুকে জিজ্ঞাসাবাদে সে কিছুই বলতে পারেনি। বাড়ীতে আসার পর সেতু মন্ডল ৪-৫ দিন ঘুমে বিভোর থাকে। ১৭ এপ্রিল বুধবার সকাল ৯টায় সেতুর মা তাকে খাবারের জন্য বললে সেতু খাবার খেতে অনিহা প্রকাশ করে। পরে তার মা বাহিরে পানি আনতে গেলে তার ঘরের আড়ার সাথে উরনা পেচিয়ে আতœহত্যা করে। পরে সেতু মন্ডলকে ঝুলন্ত অবস্থা থেকে উদ্ধার করে মিটফোর্ড হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

সিরাজদিখান থানার ওসি মোঃ ফরিদ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, মারা যাওয়ার পর পুলিশকে খবর দিলে,পুলিশ সেতুকে মিডঢোর্ড হাসপলে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করে। তিনি জানান, সন্ধেহ ভাজন এক জনকে জিজ্ঞাসা করার জন্য আটক করা হয়েছে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *