শিশু সুরক্ষা কমিটি’র সভাপতি যখন শিশু বিয়ের আয়োজক

সমগ্র বাংলা


আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:
লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলা শিশু সুরক্ষা কমিটি’র সভাপতি গোলাম ফারুক সোনা’র বিরুদ্ধে শিশু বিয়ের আয়োজন করার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার রাতে ওই সভাপতি সিঙ্গিমারী ইউনিয়নের উওর ধুবনী গ্রামের তার নিজ বাড়িতে এ শিশু বিয়ের আয়োজন সম্পন্ন করেন। গোলাম ফারুক সোনা উওর ধুবনী গ্রামের তাইজুল ইসলামের পুত্র। রুপান্তর নামে একটি এনজিও ওই ‘শিশু সুরক্ষা কমিটি’র মাধ্যমে এ উপজেলায় বাল্য বিয়ে রোধে কাজ করে আসছে।

জানা গেছে, রুপান্তর নামে একটি এনজিও শিশু বিয়ে রোধে হাতীবান্ধা উপজেলা শিশু সুরক্ষা কমিটি গঠন করেন। ওই কমিটি’র সভাপতির দায়িত্বে আছেন গোলাম ফারুক সোনা। গত মঙ্গলবার রাতে ওই উপজেলার উওর ধুবনী গ্রামে গোলাম ফারুক সোনা তার নিজ বাড়িতে একটি শিশু বিয়ে আয়োজন সম্পন্ন করেন। শিশু বিয়ের বর হলেন, একই এলাকার আকতার আলীর পুত্র ওমর আলী ও কনে হলেন পার্শ্ববর্তী পূর্ব সির্ন্দুনা গ্রামের চাম্পাফুল এলাকার এক স্কুল ছাত্রী।

হাতীবান্ধা উপজেলা শিশু সুরক্ষা কমিটি’র ওই সভাপতি গোলাম ফারুক সোনা তার নিজ বাড়িতে শিশু বিয়ের আয়োজন সম্পন্ন করার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, কিছু মানুষ এসে হাতে-পা ধরে তখন আমি বাধ্য হয়ে শিশু বিয়ের আয়োজনে একটু সহযোগিতা করে থাকি মাত্র।

হাতীবান্ধা উপজেলার সিঙ্গিমারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মনোয়ার হোসেন দুলু বলেন, উপজেলা শিশু সুরক্ষা কমিটি’র সভাপতি গোলাম ফারুক সোনা আমার জানা মতে এ পর্যন্ত ৩টি শিশু বিয়ে দিয়েছেন। বিষয়টি আমি ওই কমিটি’র পৃষ্ঠপোষকতায় থাকা রুপান্তর নামক এনজিও’কে জানিয়েছি।

হাতীবান্ধা উপজেলা শিশু সুরক্ষা কমিটি’র পৃষ্ঠপোষক এনজিও রুপান্তর’র এরিয়া ব্যবস্থাপক মোস্তফিজুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমি একটু জানতে পেয়েছি। তদন্ত করে সত্যতা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

হাতীবান্ধার ইউএনও সামিউল আমিন বলেন, বিষয়টি আমি জানতে পেয়েছি। পুরো বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *