তবে কী গুঞ্জন সত্যি হচ্ছে?

জাতীয় রাজনীতি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী বিএনপির সংসদ সদস্যরা (এমপি) কী করবেন? সংসদীয় বিধি অনুযায়ী সংসদে যেতে চাইলে আগামী ৩০শে এপ্রিলের মধ্যেই তাদের শপথ নিতে হবে। কিন্তু ৩০শে ডিসেম্বরের নির্বাচন ও এর ফলাফলকে প্রত্যাখ্যান করেছে বিএনপি। একই সঙ্গে সংসদে যোগ না দেয়ার সিদ্ধান্ত রয়েছে দলটির।

এদিকে বিজয়ী বিএনপির পাঁচ প্রার্থীই এখন ঢাকায়। সোমবার রাতে গুলশান কার্যালয়ে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সঙ্গে বৈঠক করেছেন তারা। সেখানে শপথ ও খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে নিজেদের অবস্থান ও দলের অবস্থান নিয়ে আলোচনা হয়। তবে শপথের বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানান বৈঠকে অংশ নেওয়া নেতারা।

বৈঠকের ব্যাপারে ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে নির্বাচিত জাহিদুর রহমান বলেন, এটা ঠিক বৈঠক না। যারা নির্বাচিত হয়েছি তাদের মধ্যে পরিচিতি ও সৌজন্য সাক্ষাৎ ছিল। মহাসচিব বাদে বাকি পাঁচজন যারা আছি তারা নিজেদের মধ্যে আলোচনা, কে কী অবস্থায় আছি, এলাকায় কী হচ্ছে, এগুলো নিয়েই কথা বলেছি।

গত ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে সারা দেশে বিএনপির ছয় প্রার্থী সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন। এরা হলেন- বগুড়া-৬ আসনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বগুড়া-৪ আসনে মোশাররফ হোসেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনে মো. হারুন উর রশীদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে আমিনুল ইসলাম, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনে জাহিদুর রহমান ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া।

অন্যদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তি নিয়ে গোপনে সমঝোতা হচ্ছে বলে গুঞ্জন রয়েছে। কয়েক দিনের মধ্যেই তার পরিবারের পক্ষ থেকে সরকারের কাছে এ বিষয়ে আবেদন করা হবে। সমঝোতার উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো হলো- মির্জা ফখরুলসহ দলের ৬ জন নির্বাচিত এমপিকে বিএনপি যদি সংসদে পাঠাতে রাজি হয় তাহলে বিনিময়ে সরকার বেগম খালেদা জিয়াকে প্যারোলে মুক্তি দেবে। মুক্তি পেয়ে তিনি সরাসরি লন্ডন চলে যাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *