শুভ জন্মদিন মহানায়ক

বিনোদন

চলচ্চিত্রের মহানায়ক মান্না। বলা যায় এক অধ্যায়ের নাম। একাধারে তিনি নায়ক, প্রযোজক ও সংগঠক ছিলেন। চলচ্চিত্র থেকে সিনিয়র শিল্পীরা যখন দূরে ছিলেন। সেই সময়ে অনেক গুণী সিনিয়র অভিনয় শিল্পীকে তিনি চলচ্চিত্রে ফিরিয়ে এনেছিলেন। ইন্ডাস্ট্রির মানুষ এখনও নায়ক মান্নাকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে।

আজ ১৪ এপ্রিল পয়লা বৈশাখ নায়ক মান্নার জন্মদিন। উইকিপিডিয়া ও নায়কের পাসপোর্টে আলাদা আলাদা তারিখ উল্লেখ থাকলেও তার স্ত্রী শেলি মান্না জানান পহেলা বৈশাখেই জন্ম নায়ক মান্নার।

এই নায়কের অভিনীত প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘পাগলি’। ১৯৯১ সালে মোস্তফা আনোয়ার পরিচালিত ‘কাসেম মালার প্রেম’ ছবিতে প্রথম একক নায়ক হিসেবে কাজ করেন মান্না। ছবিটি ব্যবসাসফল হওয়াতে মান্নাকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি।

এরপর কাজী হায়াত পরিচালিত ‘দাঙ্গা’ ও ‘ত্রাস’ ছবির মাধ্যমে তার একক নায়ক হিসেবে প্রতিষ্ঠা পাওয়া সহজ হয়ে যায়। একে একে মোস্তফা আনোয়ার পরিচালিত ‘অন্ধ প্রেম’, মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘প্রেম দিওয়ানা’, ‘ডিস্কো ড্যান্সার’, কাজী হায়াত পরিচালিত ‘দেশদ্রোহী’, ছবিগুলো ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে মান্নার অবস্থান শক্তভাবে প্রতিষ্ঠিত করে।

১৯৯৯ সালে ‘কে আমার বাবা’, ‘আম্মাজান’, ‘লাল বাদশা’র মতো সুপারহিট ছবিতে কাজ করেন মান্না।

প্রযোজক হিসেবেও মান্না বেশ সফল ছিলেন। তার প্রতিষ্ঠান থেকে যতগুলো ছবি প্রযোজনা করেছেন প্রতিটি ছবি ব্যবসাসফল হয়েছিল। ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে লুটতরাজ, লাল বাদশা, আব্বাজান, স্বামী-স্ত্রীর যুদ্ধ, দুই বধূ এক স্বামী, মনের সাথে যুদ্ধ, মান্না ভাই ও পিতা-মাতার আমানত।

নায়ক মান্নার জন্ম ১৯৬৪ সালে। ২০০৮ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি আকস্মিক মৃত্যুবরণ করেন এই জনপ্রিয় নায়ক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *