স্কুল শিক্ষিকার হাত থেকে বাঁচতে সংবাদ সম্মেলন

সমগ্র বাংলা

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার রেজবীন নাহার (৩১) নামের এক স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রতারণা অভিযোগ করেছেন স্বামী আল আমিন রনি। শনিবার সকালে গফরগাঁও প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ অভিযোগ করেন তিনি। রেজবীন নাহার লামকাইন মধ্যপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আল আমিন রনি দাবি করে বলেন, ২০১৩ সালে ১৪ নভেম্বর উপজেলার পাগলা থানাধীন দত্তেরবাজার ইউনিয়নের বিরই গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে রেজবীন নাহারের সাথে কাবিন রেজিস্ট্রিমূলে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্ত্রী রেজবীন নাহার পৌরশহরের শিলাসী গ্রামের স্বামী আল আমিন রনির বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন।

আল আমিন রনি আরো বলেন, স্ত্রী রেজবীন নাহার আমার বিয়ে তথ্য গোপন রেখে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ২০১৬ সালে ৮ জুলাই একই উপজেলার উস্থি ইউনিয়নের নয়াবাড়ি গ্রামের মো. নূরুল ইসলামের ছেলে জহিরুল ইসলামকে আবার দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এরপর থেকেই স্ত্রী রেজবীন নাহার গোপনে দুই স্বামীর সাথে সংসার করতে থাকেন। প্রতারণা করে বিয়ে এবং গোপনে দুই স্বামী সাথে সংসার করার বিষয়টি প্রকাশ পেলে ঘটনাটি চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

পরে প্রথম স্বামী আল আমিন রনি স্ত্রী রেজবীনকে আনতে গেলে তার বাবা রফিকুল ইসলাম তাতে বাধা দেয়। উল্টো প্রথম স্বামী আল আমিন রনির বিরুদ্ধে গত ৩ মে পাগলা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন রেজবীন নাহারের বাবা রফিকুল ইসলাম।

স্বামী আল আমিন রনি প্রতারক স্ত্রী ও তার বাবার দায়ের করা মিথ্যা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রশাসনের সহযোগিতা দাবী করেন।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত স্ত্রী রেজবীন নাহারের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে বন্ধ থাকায় কারণে কথা বলা সম্ভব হয়নি। এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আল আমিন রনির বাবা নূরুল আমিন, চাচা আবুল কাশেম, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তি মো. বদর উদ্দিন, আবুল কাশেম উজ্জল, মো. পাভেল, মো. শামছুদ্দিন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *