১৮, নভেম্বর, ২০১৯, সোমবার | | ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

মাশরাফির কারনেই ন্যায্য মূল্য পেয়ে সন্তুষ্ট নড়াইলের কৃষকরা

আপডেট: May 25, 2019

মাশরাফির কারনেই ন্যায্য মূল্য পেয়ে সন্তুষ্ট নড়াইলের কৃষকরা

আয়ারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা জয়ের পরদিনই আয়ারল্যান্ডে দেশে ফিরেই এলাকার খবর নেন নড়াইল-২ আসনের এই সংসদ সদস্য।

খবর নেওয়ার সময় তিনি জানতে পারেন ধানের ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে কৃষকরা। এমনকি ধান বিক্রি করে তাদের উৎপাদন খরচ পর্যন্ত উঠছে না। যেখানে সরকার এক মণ ধান কিনছেন এক হাজার ৪০ টাকা দরে, সেখানে নড়াইলের বিভিন্ন হাটে-বাজারে এক মণ ধান বিক্রি হচ্ছিল ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা দরে।

বিষয়টি জনার পরপরই রবিবার রাতে নড়াইলের জেলা প্রশাসক আনজুমান আরার সাথে যোগাযোগ করেন মাশরাফি। তিনি তাকে ফোন করে বলেন,কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান ক্রয় করতে বলেন। কেবল তাই নয়, সরকারিভাবে ধান কেনার ক্ষেত্রে কৃষকরা যাতে বঞ্চিত ও হয়রানির শিকার না হন, এজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণেরও পরামর্শ দেন মাশরাফি।

মাশরাফির পরামর্শে ও জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে ইতোমধ্যেই কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান ক্রয় করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এদিকে ধানের ন্যায্য মূল্য পেয়ে বেজায় খুশি নড়াইলের কৃষকরা। এ সময় শুকরিয়া আদায় করার পাশাপাশি তারা জানান, প্রথমবারের মতো সরকারিভাবে ধান বিক্রি করতে পারার অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। কৃষকদের দাবি, সরকারিভাবে ধান ক্রয়ের এই প্রক্রিয়া যেন ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকে।

নির্দেশের পরই কৃষকদের কাছে থেকে সরাসরি ধান ক্রয় করা হয়। এতে কৃষকরা তাদের ন্যায্য মূল্য পেয়েছে। ন্যায্য মূল্য পাওয়ার পর কৃষকদের মধ্যে এখন আনন্দ বিরাজ করছে এবং উৎফুল্ল কৃষকরা নিজেরদের পরিশ্রমের সঠিক মুল পাচ্ছে।

-এডি/ এএ