১৮, নভেম্বর, ২০১৯, সোমবার | | ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

ধোনির বিরুদ্ধে উঠল যত ভয়ঙ্কর অভিযোগ

আপডেট: April 13, 2019

ধোনির বিরুদ্ধে উঠল যত ভয়ঙ্কর অভিযোগ

তিনি বিশ্বক্রিকেটে পরিচিত ‘ক্যাপ্টেন কুল’ হিসেবে।না, আর এমনটা বলা যাবে না।ভদ্রতার মুখোশ পড়া ধোনি ক্যারিয়ারে বহুবার মেজাজ হারিয়েছেন।যার সর্বশেষ দেখা মিলল বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ)। সেই মুহূর্তের সাক্ষী রইল ক্রিকেট বিশ্ব। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে রীতিমতো ক্ষুব্ধ হয়ে ঢুকে গেলেন মাঠে। ঘটনায় শাস্তির মুখেও পড়তে হয়েছে ধোনিকে।আগে কি কখনও জানতেন, উপরে হরিনের চামড়া পড়া থাকলেও ভিতরে ধোনির নেকড়ে হিংস্র বাঘের রুপ। দেখে নিন ধোনির সম্প্রতী এমন কতগুলো মুহুর্ত।

এক. জানুয়ারি, ২০১৯, অ্যাডিলেডে অজিদের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় এক দিনের ম্যাচ। ব্যাট করছিলেন ধোনি ও দীনেশ কার্তিক। জয়ের থেকে তখনও বেশ কিছুটা দূরে টিম ইন্ডিয়া। ক্লান্ত ধোনি জলপানের বিরতি চেয়েছিলেন। তখন জল নিয়ে মাঠে ঢোকেন খলিল আহমেদ। পিচের উপর দিয়েই তিনি হেঁটে আসছিলেন ধোনির দিকে। বিরক্ত ধোনি কড়া ভাবে বলেন, “উইকেটের উপর দিয়ে আসবি না।” ধোনির নির্দেশ পাওয়া মাত্রই পিচের উপর থেকে সরে আসেন খলিল।

দুই. ২০১৮-এর এশিয়া কাপে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে খেলা চলছে। বোলার তখন কুলদীপ যাদব। ফিল্ডার পরিবর্তন করার বিষয়ে বার বার ধোনিকে অনুরোধ করছিলেন কুলদীপ। বিরক্ত ধোনি বলেন, ‘‘যা ফিল্ডার সাজানো হয়েছে, তাতেই বল কর। না হলে অন্য বোলার আনব।’’ ধোনির পুরো বক্তব্যই ধরা পড়ে মাইক্রোফোনে।

তিন. ফেব্রুযারি, ২০১৮। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টি২০ ম্যাচ। মণীশ পাণ্ডেকে নিয়ে ব্যাট করছিলেন এম এস। তখনই পাণ্ডের উপর রেগে যেতে দেখা যায় ধোনিকে। মনসংযোগের অভাব হচ্ছে বলে তাঁকে বকাবকি করতেও শোনা যায় ধোনিকে।

চার. ২০১৭ শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টি২০ ম্যাচ। বোলার ছিলেন তরুণ কুলদীপ। ফিল্ডার নিয়ে ধোনির কাছে বার বার অনুযোগ করছিলেন কুলদীপ। বেশ রেগে গিয়ে বাঁ হাতি স্পিনারকে ধমকাতে শোনা যায় মিস্টার কুলকে।

পাঁচ. ২০১৫, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে একদিনের ম্যাচ। ব্যাটসম্যান ধোনি। বোলার বাংলাদেশের মোস্তাফিজুর রহমান। রান নেওয়ার সময় বোলার মোস্তাফিজুর ধোনির সামনে চলে আসায় মেজাজ হারাতে দেখা যায় মিস্টার কুলকে।মোস্তাফিজকে সজোরে ধাক্কা মারেন এই ভারতীয় সাবেক দলনেতা।পরে তামিমের সহায়তায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

ছয়. গত বছর আইপিএলে রাজস্থানের বিরুদ্ধে খেলা। বোলাররা ঠিক মতো বল করতে পারছেন না দেখে মিস্টার কুল চরম বিরক্তি প্রকাশ করেন। বেলারদের রীতিমতো ধমকাতে শোনা যায় তাকে।

সাত. ২০১২ অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে বোলার তখন সুরেশ রায়না। মাইক হাসিকে স্টাম্প আউট করেছিলেন ধোনি। তৃতীয় আম্পায়ার আউটও দিয়েছিলেন। সেই মতো প্যাভিলিয়নেও ফিরে যাচ্ছিলেন হাসি। তখনই ফিল্ড আম্পায়ার বিলি বাওডেন তাকে ফিরিয়ে আনেন। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ ধোনির সঙ্গে বিলির তর্ক হয়। বিলি বলেন, ‘আসলে তৃতীয় আম্পায়ার জানিয়েছেন হাসি আউট নন, সেই মতোই ফিরিয়ে আনা হচ্ছে তাকে।’

মাঠেই নেমে আসেন ধোনি তবে সব কিছুকে ছাড়িয়ে যায় রাজস্থানের বিরুদ্ধে জয়পুরের সোয়াই মান সিংহ স্টেডিয়ামের ঘটনা। যে ভাবে মাঠের মধ্যে ঢুকে আম্পায়ারদের সঙ্গে তর্কে জড়ালেন, তা অতীতে কোনও দিনই দেখা যায়নি।আর এর প্রতিবাদে বিশ্বক্রিকেটে বসছে নিন্দার ঝড়।

গোনিউজ২৪/এএস