১৯শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং, রবিবার

বহিরাগতের এটিএম কার্ড ছিনিয়ে জোরপূর্বক টাকা উত্তোলন, ২ ঢাবি শিক্ষার্থী আটক

আপডেট: ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯

| Palash Mondol

ছিনতাইয়ের অভিযোগে আটক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র রবিন আহমেদ (বাঁয়ে) ও আইন বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র নাহিদুল ইসলাম ফাগুন।

ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) দুই শিক্ষার্থীকে আটক করেছে শাহবাগ থানা পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা থেকে তাঁদের আটক করা হয়। শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

থানা সূত্রে জানা যায়, আজিমপুর এলাকা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বেড়াতে আসেন শামস ও শুভ নামের দুজন। এ সময় তাঁদের পরিচয় জানতে চান আটক দুই শিক্ষার্থীসহ বেশ কয়েকজন। পরে ভুক্তভোগীরা ক্যাম্পাসের বাইরের পরিচয় দিলে তাঁদের মারধর করেন অভিযুক্তরা। অভিযোগকারীদের একজনের কাছ থেকে এটিএম কার্ড ছিনিয়ে নেন রবিন ও নাহিদ। এর পর ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে জোরপূর্বক পাসওয়ার্ড নিয়ে টাকা উত্তোলন করেন।

পরবর্তী সময়ে ভুক্তভোগীরা শাহবাগ থানায় অভিযোগ করেন। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ দুজনকে আটক করে।

আটক শিক্ষার্থীরা হলেন রবিন আহমেদ ও নাহিদুল ইসলাম ফাগুন। এর মধ্যে রবিন বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের এবং নাহিদুল ইসলাম ফাগুন আইন বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র। রবিন বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল আর নাহিদুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের আবাসিক ছাত্র।

এর আগে নাহিদুল ইসলাম ফাগুনের বিরুদ্ধে টিউটোরিয়াল পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস করার অভিযোগও উঠেছিল।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রাব্বানী বলেন, ‘অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দুজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের শাহবাগ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

প্রক্টর আরো বলেন, ‘আমরা ছিনতাই প্রতিরোধে বিভিন্ন স্থানে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করেছি। যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আসছে, প্রমাণ পেলেই ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান বলেন, ‘অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের আটক করা হয়েছে। আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করছি। তাদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।’